ধনী হওয়ার তাবিজ ব্যবহার করুন।৭ দিনে ফলাফল

ধনী হওয়ার তাবিজ ব্যবহার করুন।৭ দিনে ফলাফল

ধনী হওয়ার তাবিজ? আসলেই কি ধনী হওয়ার তাবিজ কাজ করে? 

ইসলাম ধর্মে রিযিক বৃদ্ধি করার জন্য পরিক্ষিত কিছু  দোয়া বা আমল  আছে।(‌√) ( না পড়লে অবশ্যই বড় কিছু মিস করবেন)


ধনী হওয়ার তাবিজ


আমরা মুসলিমরা কুরআন শরীফ বা হাদিস শরীফের তুলনায় নামসর্বস্ব কিছু ফকির, জাদুকর দের কথাকে বেশি প্রাধান্য দিই।যাদের প্রধান ব্যবসা হচ্ছে তাবিজ। ধনী হওয়ার তাবিজ বিক্রি করে অনেকেই! আপনি একটু সহজ ভাবে চিন্তা করুন যদি ধনী হওয়ার তাবিজ হাতে/কবজে বেধেই যদি ধনী হওয়া যেত তাহলে তারা নিজেরাই সেই তাবিজ হাতে বেধে ঘুরাঘুরি করতো।আপনার কাছ থেকে ২০/৫০ টাকা নেওয়ার জন্য  ধনী হওয়ার তাবিজ বিক্রি করতো না।


 তাহলে আসলেই কি ধনী হওয়ার তাবিজ কাজ করে না?

 এই প্রশ্নের উত্তর সরাসরি হচ্ছে না।যদিও আমি সেই সব সাধক বাবাদের তাবিজের  অঙ্কন এখানে সংযুক্ত করে দিচ্ছি।

 চাইলে আপনি নিজেই অঙ্কন করে ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

ধনী হওয়ার তাবিজ কাজ করুক বা না করুক ইসলামে কিন্তু সত্যি সত্যিই ধনী হওয়ার উপায় বলে দেওয়া আছে। 


তবে এজন্য আপনাকে একজন পরিপূর্ণ মুসলিম হওয়া আবশ্যক।কেননা মহান আল্লাহ তালা কোন বেনামাজির দোয়া কবুল করেন না।



ধনী হওয়ার তাবিজ দেওয়ার আগে সত্যি কারের কিছু ধনী হওয়ার দোয়া বলি।


দোয়া ১ঃ

"হুযুর (সাঃ) বললেন

سبحان الله و بحمده سبحان الله العظيم و بحمده استغفر الله

উচ্চারন- সুবাহানাল্লহী ওয়াবিহামদীহি সুবাহানাল্লহীল আজীমী ওয়াবিহামদীহি আসতাগফিরুল্লাহ ।

অর্থাৎ "আল্লাহ তা'আলার পবিত্রতা বর্ণনা করছি এবং তার প্রশংসাগীতির সাথে তাকে স্মরণ করছি, মহান আল্লাহ তা'আলার পবিত্রতা বর্ণনা করছি এবং তার প্রশংসা বর্ণনার সাথে আল্লহ্ তাআ'লার নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করছি। "



কোন ব্যক্তি যদি এই দোয়া প্রতিদিন  ফজরের নামাজের আগে কিংবা পরে একশত বার পাঠ করে ইনশাআল্লাহ তার অবস্থার উন্নতি ঘটবে।তবে মনে রাখতে হবে  হেটে হেটে বা এদিক সেদিক দুনিয়াবি ধ্যান নিয়ে পড়া যাবেনা,

এক যায়গাতে বসে পড়তে হবে।




দোয়া ২ঃ


و لا حول و لا قوة إلا بالله العلي العظيم)"

উচ্চারণ- ওয়ালা হাউলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহীল আলীইয়ীল আজীম"



এটি হচ্ছে একটি তাসবীহ ।এই তাসবির মুল বক্তব্য হচ্ছে এস্তেগফার।

এই দোয়া অবশ্যই গোনাহের মাগফিরাতের এবং রিযিক বৃদ্ধির সহায়ক হবে ।কারন গোনাহের কারনেই মানুষের রিযিকে সংকীর্ণতা এবং সকল প্রকার বালা মুসিবত ঘটে থাকে।


এছাড়াও আরও অনেক আমল রয়েছে। যেগুলো আপনি এখান থেকে দেখতে পারেন।



এবার আবার ফিরে আসি ধনী হওয়ার তাবিজ প্রসঙ্গে। 

আমি অবশ্যই একজন মুসলিম হিসেবে এসকল ধনী হওয়ার তাবিজ বা সকল প্রকার তাবিজ থেকে বিরত থাকবো কেননা অনেক আলেমের মতে শুধু ধনী হওয়ার তাবিজ নয়, সকল প্রকার তাবিজ ব্যবহার করা শিরক।




তবুও আমি আপনাকে ধনী হওয়ার তাবিজ দেবো।

কেননা নকল আর আসলকে পাশাপাশি রাখলেই আপনি আসল নকলের পার্থক্য বুঝতে পারবেন।


প্রথমত কিছুদিন এই নামসর্বস্ব ধনী হওয়ার তাবিজ ব্যবহার করুন।

তারপর কিছুদিন ইসলাম অনুযায়ী আমল করুন।ফলাফল হাতে নাতেই পাবেন।


ধনী হওয়ার তাবিজ ১ঃ


 ধনী হওয়ার তাবিজ

উপরে দেওয়া ম্যাপের মত করে হুবহু একটা পৃষ্ঠায় ম্যাপ অঙ্কন করুন।

এর কাগজ টা সুন্দর করে রোল করে/পেচিয়ে কবজি বা হাতে ইউজ করুন।


ধনী হওয়ার তাবিজ ২ঃ


ধনী হওয়ার তাবিজ

সেম আগের টার মত করেই ব্যবহার করুন।


তাবিজ বিক্রেতাদের মত করে বলবো বহুত ফায়দা হবে ইনশাআল্লাহ। 


বাকিটা আল্লাহর ইচ্ছা।


একটা বাংলা প্রবাদ আছে বিশ্বাসে মিলায় বস্তু তর্কে বহুদূর। 


আল্লাহ আপনার নেক ইচ্ছাকে পূরণ করুন।


সর্বশেষ একটা কথাই বলবো ধনী হওয়ার তাবিজ বাদ দিয়ে ইসলাম অনুযায়ী আমল করুন।

সুন্দর সুস্থ সুখি জীবন যাপন করুন।

Post a Comment

0 Comments